প্রতিদিন ১০ মিনিট বাঁচানোর ১০ টি উপায়

কেমন হবে এক বছরে ৬০ ঘণ্টা অতিরিক্ত সময় হাতে পেলে? পছন্দমত কাজ সারতে কেমন লাগবে এই সময়ে? প্রতিদিন মাত্র ১০ মিনিট করে বাঁচাতে হবে এর জন্য। FIT4MOM এর প্রতিষ্ঠাতা Lisa Druxman কিছু আইডিয়া দিয়েছেন যেগুলো আপনাকে প্রতিদিন সময় বাঁচাতে সাহায্য করবে।

হয়ত ভাবছেন ১০ মিনিট এ আর কি এমন সময়? কিন্তু যারা সময়ের মুল্য বোঝেন তাদের কাছে এই সময়টুকু অনেক কিছু। আমরা একটু অলস আছি তাই সময়ের মুল্য দিতে জানি না। কিন্তু এই সময়ই সবচে মূল্যবান সম্পদ। তাই মূল্যবান সম্পদ একটু একটু করে বাঁচাতে কি করা যেতে পারে দেখি।

  • বাচ্চাদের কাজের একটা তালিকা করুন প্রতিদিন

ওরা যতই ছোট হোক, ওদের জন্য যা করতে হয় নিয়মিত তার লিস্ট করে রাখুন। স্কুলে যাবার আগে, বা বাইরে কোথাও যেমন খেলাধুলা বা কেনাকাটায় যাবার সময় যা করতে হবেই সেগুলো লিস্টে থাকলে সব করা হল কি না মিলিয়ে নেওয়া যায় সহজেই। এতে করে অনেকটা সময় বাঁচে আপনার।

  • সপ্তাহের কাটাকাটির কাজ সারুন একবারেই

Eat Cleaner পণ্যটি ব্যবহার করতে পারেন। এটা কেটে রাখা সবজি বা খাবার ধোয়ার কাজ করে দেয়, এবং তা চমৎকার উপায়ে। আপনি এক সপ্তাহে যে পরিমাণ খাবার খেতে হবে সে পরিমাণ খাবার কেটে নিয়ে ক্লিনার দিয়ে পরিষ্কার করে ফুড গ্রেডেড বক্সে ভরে রেখে দিতে পারেন। বারবার ধোয়ার ঝামেলা থাকছে না আর তাই অনেকটা সময় বাঁচে এতে করে।

  • ঘরের নানান জায়গায় একাধিক বাস্কেট রাখুন

প্রতিদিন যে সব টুকিটাকি জিনিস ব্যবহার করেন সেগুলো সব এক জায়গায় রাখলে অনেক সময় প্রয়োজনের সময় সেটা হাতিয়ে খুঁজে নিতে সময় বেশি লেগে যায়। তাই জিনিসগুলো কয়েকটা ক্যাটেগরিতে ভাগ করে নিয়ে আলাদা আলাদা বাস্কেটে রাখুন। যখন যেটা লাগবে সেটা খুঁজে নিন, চটপট।

  • একটা নিন, একটা দিন

যদি আপনার ছোট্ট পিচ্চিটা নতুন কোন খেলনা পেতে চায়, তাহলে সেটা দেওয়ার আগে তাকে বলুন তার আগের খেলনাগুলো থেকে একটা খেলনা কাউকে দিয়ে দিতে। এমন কাউকে যার ওরকম একটা খেলনা দরকার। এতে করে যে আপনার সন্তান শুধু কাউকে কিছু দেওয়াই শিখবে তা না, বরং এতে খেলনার পাহাড় জমবে না যেগুলো সাজিয়ে-গুছিয়ে রাখতে আপনার অনেকটা সময় খরচ হত।

  • বাচ্চারা বাইরে থাকলে নিজের এক্সারসাইজ সেরে নিন

যখন ওরা স্কুলে বা খেলাধুলায় থাকে তখন নিজের একান্ত কাজ যেমন যারা ব্যায়াম করেন তারা তাদের নিয়মিত এক্সারসাইজটুকু সেরে নিতে পারেন। অথবা আত্ম-উন্নয়নমূলক কাজগুলো সেরে ফেলতে পারেন এই সময়ে। আপনার মনোযোগ অন্যদিকে দেওয়ার সুযোগ কম পাবেন, সময় বাঁচবে।

  • সময়ের ১০ মিনিট আগেই বাচ্চাদের রেডি করুন

টিভি দেখা, ভিডিও গেম খেলা বা শুয়ে-বসে কাটানো-যে কোন কাজের জন্যই তাদেরকে ১০০ ভাগ প্রস্তুত করে নিতে হবে। তাই প্রস্তুতিও নিতে হবে আগে থেকে-এই বিশ্বাসটা ওদের মাঝে গেঁথে দিতে হবে। এতে করে ওরা এই অভ্যাসটা গড়ে তুলতে পারবে এবং জীবনের প্রায় সব কাজই সঠিক সময়ে করতে শিখবে।

  • একইরকম কয়েক জোড়া মোজা কিনুন বাচ্চাদের জন্য

কেন? কারণ একরঙা, এক ডিজাইনের মোজা হওয়ায় চোখ বুজে মোজা তুলে নিলেও সেটা ম্যাচ হবে, নো চিন্তা! এতে সময় বাঁচবে কতটা আপনি নিজেও জানবেন না।

  • লাঞ্চের খাবার ভিন্ন ভিন্ন বক্সে রাখুন

যেমন মাংস এক বক্সে, ফলমূল আরেকটায়, চিপস অন্যখানে। এতে করে সব মিশে যাবার সম্ভাবনা থাকছে না, যতটা লাগছে যেটা ততটাই নিতে পারছেন সেটা সময় বাঁচিয়ে।

  • ডিজিটাল ক্যালেন্ডারটি শেয়ার করুন

এখন স্মার্ট গ্যাজেট প্রায় অনেকেই ব্যবহার করেন। তাদের জন্য তাদের ক্যালেন্ডারটি পরিবারের অন্যদের সাথে শেয়ার করা সহজ। এতে করে পরিবারের সবাই জানতে পারছে কোন দিনে কোন কাজটা করতে হবে, কতদিন বাকি আছে হাতে, বা কে কে থাকতে পারবে সেদিন। এগুলো আগে থেকে জানলে এক দিকে যেমন সবার প্রস্তুতিটাও হবে ভাল, পাশাপাশি সময়ও বেঁচে যাবে আপনার অনেকখানি।

  • ডাবল করুন একবার

অর্থাৎ সপ্তাহে একবারের জন্য হলেও আপনার ডিনারের খাবার দিগুণ পরিমাণে তৈরি করুন। তারপর অতিরিক্ত অংশ ফ্রিজে রেখে দিন। এতে করে আপনার হিমায়িত খাদ্যভান্ডার মজুত থাকবে এবং খুব ব্যস্ত কোন একদিনে সেই খাবার আপনার কতটা সময় বাঁচাবে ভাবুন একবার।

  • প্রতিদিন আরও সময় বাঁচিয়ে চলুন

হয়ত আপনি অনেক ব্যস্ত একজন মা অথবা বাবা, কিন্তু তবুও কিছু পরামর্শ অবলম্বন করে আপনিও পারেন নিজের জন্য, পরিবারের জন্য আরও খানিকটা সময় বের করতে। আর সেই মূল্যবান পরামর্শ দিচ্ছেন ফিটনেস এক্সপার্ট Lisa Druxman তাঁর বই The Empowered Mama: How to Reclaim Your Time and Yourself While Raising a Happy, Healthy Family

ধন্যবাদ সবাইকে

তথ্যসূত্রঃ

RD

প্রতিদিন ১০ মিনিট বাঁচানোর ১০ টি উপায়

About The Author
-

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>